রবি রিচার্জ করুন আর প্রতি দশ মিনিটে জিতে নিন একটি আকর্ষণীয় ফোরজি হ্যান্ডসেট!

রবি ৫১টাকা এর অধিক যেকোনো রিচার্জে প্রতি দশ মিনিটে জিতে নিন একটি আকর্ষণীয় ফোরজি হ্যান্ডসেট! শুধুমাত্র রকেট, বিকাশ, এমক্যাশ, মাইক্যাশ, রবিক্যাশ,  আইপে ও নগদ রিচার্জের জন্য প্রযোজ্য।

রবি-রিচার্জ-করুন-আর-প্রতি-দশ-মিনিটে-জিতে-নিন-একটি-আকর্ষণীয়-ফোরজি-হ্যান্ডসেট
রবি রিচার্জ করে প্রতি ১০ মিনিটে জিতে নিন হ্যান্ডসেট!
রবি’তে ৫০ টাকার বেশি যেকোনো রিচার্জে প্রতি দশ মিনিটে জিতে নিন একটি আকর্ষণীয় হ্যান্ডসেট!
ক্যাম্পেইনের সময়কালঃ
০১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ থেকে ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ পর্যন্ত।
প্রতিদিন সকাল ০৯:০০:০১ থেকে বিকাল ০৪:৫৯:৫৯ টার মাঝে।
শর্তাবলী
  • এই অফার রবি এবং এয়ারটেল গ্রাহকদের জন্য প্রযোজ্য।
  • শুধুমাত্র রবিক্যাশ, বিকাশ, রকেট, নগদ, মাইক্যাশ, এমক্যাশ এবং আইপে রিচার্জ প্রযোজ্য।
  • ৫০ টাকার বেশি মূল্যের যে কোনো বান্ডেল কিনলে এই অফারের যোগ্য বিবেচিত হবেন।
  • প্রতিদিন সকাল ০৯:০০:০১ থেকে বিকাল ৪:৫৯:৫৯ টার মাঝে রিচার্জকারীদের থেকে বিজয়ী নির্বাচন করা হবে।
  • এই ক্যাম্পেইনে আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে ৫০ টাকার বেশি রিচার্জকারীদের থেকে প্রতি ১০ মিনিটে একজনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে। (প্রথম রিচার্জ পিরিয়ড সকাল ০৯:০০:০১ থেকে ০৯:০৯:৫৯ পর্যন্ত, দ্বিতীয় রিচার্জ পিরিয়ড সকাল ০৯:১০:০১ থেকে ০৯:১৯:৫৯ পর্যন্ত ইত্যাদি )
  • একটি নম্বর এবং জাতীয় পরিচয়পত্র দিয়ে ক্যাম্পেইন চলাকালীন একবার বিজয়ী হওয়া যাবে। অর্থাৎ একবার আপনি হ্যান্ডসেট বিজয়ী হয়ে গেলে ক্যাম্পেইন চলাকালীন আর বিজয়ী হতে পারবেন না।
  • বিজয়ীরা আকর্ষণীয় 4G হ্যান্ডসেট পাবেন।
  • বিজয়ীদের রবি থেকে বিস্তারিত জানানো হবে।
  • বিজয়ী ঘোষণা এবং পুরষ্কার বিতরণ পর্যন্ত প্রত্যেক বিজয়ীকে অবশ্যই সংযোগ চালু রাখতে হবে।
  • যে কোনও দ্বন্দ্বে রবি’র সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত (যেমন: বিজয়ী ঘোষণা/পুরস্কার বিতরণ)।
  • বিজয়ীদের রবি সেবা কেন্দ্রে সক্রিয় রবি সংযোগ সহকারে এসে প্রয়োজনীয় যাচাই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে
  • পুরস্কার সংগ্রহের জন্য বিজয়ীকে সক্রিয় সংযোগ এবং প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট সহকারে রবি সেবা কেন্দ্রে আসতে হবে।
  • যদি কোনো বিজয়ী ১ মাসের মধ্যে স্মার্টফোন সংগ্রহ না করে তবে তার পুরস্কারটি বাতিল হয়ে যাবে।

Written by 

আগ্রহ ,আকর্ষণ এবং ভালোবাসার কারণে ১৫ বছর হতে চললো আইটি সেক্টর নিয়ে তথ্য সংগ্রহ এবং এগুলো নিয়ে কাজ করার। ২০১১ সালের প্রথম দিকে ফেসবুক পেজ এবং পরবর্তীতে ওয়েবসাইট চালু করি। টেকখবরে আপনারা অনেক তথ্যই সহজে পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *